আবুবকর সিদ্দিক

জ্ঞানীপিডিয়া থেকে
আবুবকর সিদ্দিক
জন্ম (1936-08-19) ১৯ আগস্ট ১৯৩৬ (বয়স ৮৬)
গোটাপাড়া গ্রাম, বাগেরহাট, (বর্তমান বাংলাদেশ)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব ব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
 পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
 বাংলাদেশ
শিক্ষাএম এ
মাতৃশিক্ষায়তনঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাশিক্ষক, লেখক, কবি
পরিচিতির কারণপ্রবন্ধ, কবিতা
উল্লেখযোগ্য কর্ম
একাত্তরের হৃদভস্ম (১৯৯৭)
পুরস্কারবাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার

আবুবকর সিদ্দিক (জন্ম ১৯ আগস্ট ১৯৩৬)<ref name="Who">লুয়া ত্রুটি মডিউল:উদ্ধৃতি/শনাক্তক এর 47 নং লাইনে: attempt to index a nil value।</ref> একজন বাংলাদেশী কবি, ঔপন্যাসিক, ছোটগল্পকার ও সমালোচক।

জন্ম ও শৈশব[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

আবুবকর সিদ্দিক ১৯৩৪ সালের ১৯ আগস্ট (২ ভাদ্র ১৩৪১) রবিবার, বাগেরহাটের গোটাপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।<ref>"শুভ জন্মদিন কবি আবুবকর সিদ্দিক"জাগোনিউজ২৪.কম। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২০ </ref> তার পিতা মতিয়র রহমান পাটোয়ারী ছিলেন সরকারি চাকুরিজীবী এবং মা মতিবিবি ছিলেন গৃহিণী। তার পৈতৃক নিবাস ছিল বাগেরহাট জেলার বৈটপুর গ্রামে।

পিতার সরকারি চাকরির সুবাদে ১৯৩৫ থেকে তিনি হুগলি শহরে বসবাস করতে থাকেন। ১৯৪৩ সালে তার পিতা বর্ধমানে বদলি হয়ে গেলে তিনিও সেখানে চলে যান।<ref name="কালি_ও_কলম">জয়নুদ্দীন, মোহাম্মদ (২০১৯-১২-২২)। "আবুবকর সিদ্দিক : বহুমুখী প্রতিভার প্রতিভূ"কালি ও কলম। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২০ </ref><ref>"আজ কবি আবু বকর সিদ্দিকের জন্মদিন"বাংলাদেশ প্রতিদিন। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২০ </ref>

শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

১৯৫২ সালে আবুবকর বাগেরহাট মাধ্যমিক সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক শিক্ষা সম্পন্ন করে সরকারি পিসি কলেজে ভর্তি হন। সেখান থেকে ১৯৫৪ সালে উচ্চমাধ্যমিক এবং ১৯৫৬ সালে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন এবং ১৯৫৮ সালে বাংলায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন।<ref name="কালি_ও_কলম" />

কর্মজীবন[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে আবুবকর শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত হন। প্রথমে চাখার ফজলুল হক কলেজে শিক্ষকতা শুরু করলেও পরবর্তীতে বি এল কলেজ, পি.সি কলেজ, ফকিরহাট কলেজকুষ্টিয়া সরকারি কলেজে শিক্ষকতা করেন। এরপর দীর্ঘদিন তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে অধ্যাপনা করেন। ১৯৯৪ খ্রিষ্টাব্দের ৭ জুলাই সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অবসর গ্রহণ করেন। এরপর ঢাকার নটর ডেম কলেজ এবং কুইন্স বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে অধ্যাপনা করেন।<ref name="কালি_ও_কলম" /><ref>"আবুবকর সিদ্দিক এর বই সমূহ"রকমারি.কম। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-২০ </ref>

কর্ম[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

উপন্যাস[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

ছোটগল্পগ্রন্থ[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

  • ভূমিহীন দেশ (১৯৮৫)
  • চরবিনাশকাল (১৯৮৭)
  • মরে বাঁচার স্বাধীনতা (১৯৮৭)
  • কুয়ো থেকে বেরিয়ে (১৯৯৪)
  • ছায়াপ্রধান অঘ্রান (২০০০)

কাব্যগ্রন্থ[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

  • ধবল দুধের স্বরগ্রাম (১৯৬৯)
  • বিনিদ্র কালের ভেলা (১৯৭৬)
  • হে লোকসভ্যতা (১৯৮৪)
  • মানুষ তোমার বিক্ষত দিন (১৯৮৬)
  • হেমন্তের সোনালতা (১৯৮৮)
  • নিজস্ব এই মাতৃভাষায় (১৩৯৭)
  • কালো কালো মেহনতী পাখি (২০০০)
  • কংকালে অলংকার দিয়ো (২০০১)
  • শ্যামল যাযাবর (২০০০)
  • মানব হাড়ের হিম ও বিদ্যুত (২০০২)
  • মনীষাকে ডেকে ডেকে (২০০২)
  • আমার যত রক্তফোঁটা (২০০২)
  • শ্রেষ্ঠ কবিতা (২০০২)
  • কবিতা কোব্রামালা (২০০৫)
  • বৃষ্টির কথা বলি বীজের কথা বলি (২০০৬)
  • এইসব ভ্রুণশস্য (২০০৭)
  • বাভী (২০০৮)
  • নদীহারা মানুষের কথা (২০০৮)
  • হট্টমালা (২০০১) – ছড়াগ্রন্থ

পুরস্কার[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

  • বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার (১৯৮৮) <ref name="Who"/>
  • বাংলাদেশ কথাশিল্পী সংসদ পুরস্কার
  • বঙ্গভাষা সংস্কৃতি প্রচার সমিতি পুরস্কার (কলকাতা)
  • খুলনা সাহিত্য পরিষদ পুরস্কার
  • বাগেরহাট ফাউন্ডেশন পুরস্কার
  • ঋষিজ পদক
  • বাংলাদেশ লেখিকা সংঘ স্বর্ণপদক

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

<references group=""></references>