জয়দেব মুখোপাধ্যায়

জ্ঞানীপিডিয়া থেকে

জয়দেব মুখোপাধ্যায় (মৃত্যুঃ ১৭ এপ্রিল, ১৯৯৫) একজন বাঙালি লেখক ও চৈতন্য গবেষক।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

ডঃ জয়দেব মুখোপাধ্যায়ের জন্ম হয়েছিল বীরভূম জেলার বোলপুরে। তিনি সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান ছিলেন। তাঁর পিতা ও ঠাকুর্দা দুজনেই ছিলেন উচ্চপদস্থ রাজপুরুষ। জয়দেব প্রাচ্য দর্শনের উপর ডক্টরেট করেন এবং লেখার সূত্রে এশিয়ার অনেক দেশ পরিভ্রমণ করেন।

কর্মকান্ড[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

জয়দেব মুখোপাধ্যায়ের শ্রেষ্ঠ কাজ চৈতন্যদেব মৃত্যু রহস্যের অনুসন্ধান। তিনি একাধিক ভাষা এবং প্রাচীন সাহিত্য, সংস্কৃত শাস্ত্রে সুপন্ডিত ছিলেন। তাঁর ক্ষ্যাপা খুঁজে ফেরে গ্রন্থটির দুটি খন্ড ও দারুব্রহ্ম রহস্য প্রকাশ হলে বাঙালি সাহিত্য জগতে পরিচিত হন তিনি। গবেষণা করতে গিয়ে তিনি সন্দেহ করেন চৈতন্যদেবের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়নি, তাকে পুরীতে হত্যা করা হয় এবং তা ধামাচাপা দিতে কিংবদন্তীর সৃষ্টি করা হয়েছিল।<ref>Bhaṭṭācārya, Haṃsanārāẏaṇa (১৯৮৪)। Yugābatāra Śrīkr̥shṇacaitanya। Phārmā Keelaema। </ref> এই বিষয়ে তার সাথে গবেষক নীহাররঞ্জন রায় সহমত প্রকাশ করে তাকে ১৯৭৬ সালে একটি পত্র দেন। চৈতন্যদেবের জীবন নিয়ে তাঁর রচিত কাঁহা গেলে তোমা পাই প্রথম খন্ড প্রকাশিত হয় ১৯৭৮ সালে।<ref>যীশুখ্রীষ্টের জীবনের এক অজ্ঞাত অধ্যায়। Wasimus Salam। </ref> দ্বিতীয় খন্ড প্রকাশ হওয়ার পূর্বে তার রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছিল।<ref>"চৈতন্য অন্তর্ধানের কিনারা করতে গিয়ে গবেষক মৃত্যু রহস্য আঁধারে"Rplus (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৩-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৭-১৪ </ref>

মৃত্যু[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

১৯৯৫ সালের ১৭ এপ্রিল পুরীর স্বর্গোদ্বারের আনন্দময়ী মার আশ্রমে ডঃ জয়দেব মুখোপাধ্যায় ও তার মা বিমলা মুখোপাধ্যায়কে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। তাঁদের অস্বাভাবিক মৃত্যু হত্যা না আত্মহত্যা তাই নিয়ে মতভেদ রয়েছে।<ref>desk, kolkata24x7 online (২০১৬-০৬-১৬)। "both-sri-chaitanya-and-his-researcher-were-killed-in-puri"Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৭-১৪ </ref>

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

<references group=""></references>