ঢাকার জলবায়ু

জ্ঞানীপিডিয়া থেকে

ঢাকার জলবায়ু প্রধানত উষ্ণ, বর্ষণমুখর এবং আর্দ্র গ্রীষ্মমন্ডলীয়। কোপেন জলবায়ু শ্রেণীবিভাগ এর অধীনে, ঢাকার জলবায়ু ক্রান্তীয় সমভাবাপন্ন। এই শহরের একটি স্বতন্ত্র মৌসুম রয়েছে, এখানে বার্ষিক গড় তাপমাত্রা টেমপ্লেট:Convert এবং জানুয়ারী থেকে এপ্রিল মাসের মধ্যে তাপমাত্রা টেমপ্লেট:Convert থেকে টেমপ্লেট:Convert-এর মধ্যে থাকে।<ref name="weather1">"Weatherbase: Historical Weather for Dhaka, Bangladesh"। weatherbase.com। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১২-১৫ </ref> মে থেকে অক্টোবর মাসের মধ্যে গড়ে প্রায় টেমপ্লেট:Convert বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে, যা সারাবছরের মোট বৃষ্টিপাতের প্রায় ৮৭%।<ref name="weather1" /> যানজট এবং এবং শিল্প কারখানার অপরিকল্পিত বর্জ্য নির্গমনের ফলে প্রতিনিয়ত বায়ু এবং পানি দূষণ বাড়ছে, ফলে শহরের জনস্বাস্থ্য এবং জীবন মান মারাত্বকভাবে প্রভাবিত হচ্ছে।<ref name="Geo2">Lawson, Alistair (২০০২-১০-৩০)। "Dhaka 'winning' waste disposal battle"। BBC News। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৯-২৭ </ref> ঢাকার চারপাশে জলাশয় এবং জলাভূমি গুলি ধ্বংসের সম্মুখীন, কারণ বহুতল ভবন এবং অন্যান্য আবাসন উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে এগুলো ভরাট করা হচ্ছে। দূষণের ফলে প্রকৃতির যে ক্ষতি হচ্ছে তার ফলে এই এলাকার জীববৈচিত্র হুমকির সম্মুখীন।<ref>মন্ডল, মোঃ আব্দুল লতিফ (২০০৬-০৯-২৭)। "Our Cities: 15th Anniversary Special" (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৯-২৭ </ref>

ঢাকা ও এর আশেপাশে শীত আবহাওয়া অস্বাভাবিক। যখন তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড (৪৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট) বা তার চেয়ে কম হয়ে যায়, গরম পোশাকবিহীন এবং অপর্যাপ্ত তাপমাত্রাযুক্ত বাড়িতে বাস করা মানুষ শীতে মারা যেতে পারে।<ref>টেমপ্লেট:Cite news</ref><ref>টেমপ্লেট:Cite news</ref><ref>টেমপ্লেট:Cite news</ref>

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে গ্রামাঞ্চলে বসবাসরত মানুষ ঢাকার পাড়ি জমান, যার কারণে শহরে বস্তি জনসংখ্যার তীব্র বৃদ্ধির ঘটছে। যেহেতু বাংলাদেশ সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২০ ফুটেরও কম উপরে রয়েছে, সুতরাং এই আশঙ্কা রয়েছে যে একবিংশ শতাব্দীর শেষের দিকে, দেশের এক চতুর্থাংশেরও বেশি অঞ্চল জলে ডুবে যাবে এবং ১.৫ কোটি মানুষ বাস্তুচ্যুত হবে।  ২০২৫ সাল নাগাদ ঢাকার জনসংখ্যা, বর্তমানে ১.৩ কোটির জনসংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ২ কোটিতে উন্নীত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। <ref name="citiesalliance.org">টেমপ্লেট:Cite web</ref> এতে ঢাকায় পানিবাহিত রোগ এবং আরও বেশ কয়েকটি রোগের প্রাদুর্ভাবের আশঙ্কা রয়েছে। জাতিসংঘ এবং ডাব্লুডাব্লুএফের একটি প্রতিবেদনে সতর্ক করা হয়েছে যে এশিয়াতে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে ঢাকা শীর্ষে রয়েছে ।<ref>টেমপ্লেট:Cite web</ref><ref>টেমপ্লেট:Cite news</ref>

বর্তমান ঢাকা[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Wide image

মৌসুমি বৃষ্টিপাত[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

২০০৪ সালে বর্ষা মৌসুমে অতিবৃষ্টির কারণে ঢাকার রাস্তা বন্যায় ভেসে যায়।

বর্ষা মৌসুম জুনে শুরু হয় ও সেপ্টেম্বর পর্যন্ত থাকে। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্যের ভিত্তিতে গত কয়েক বছরের বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমান নিম্নরূপ:<ref>টেমপ্লেট:Cite web</ref>

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:আবহাওয়া বাক্স

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

<references group=""></references>