যাত্রাবাড়ি

জ্ঞানীপিডিয়া থেকে

যাত্রবাড়ি ঢাকা শহরের একটি থানা।

নামকরণ[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

১৯৫০ সালে যাত্রাবাড়ি ছিল একটি নিভৃত পল্লী। যাত্রাবাড়ি এলাকাটি একসময় ব্রাক্ষ্মণচিরণ মৌজার অন্তর্ভুক্ত ছিল। যাত্রাবাড়িসহ বিরাট একটি এলাকা ব্রাক্ষ্মণচিরণ নামে পরিচিত ছিল। ব্রাক্ষ্মণচিরণ এলাকার একটি বাড়িতে যাত্রামন্ডপ ছিল। প্রায়ই সেখানে যাত্রাপালা হতো। একমাত্র যাত্রাই ছিল চিত্তবিনোদনের উৎস। তাই যাত্রার প্রতি লোকজনের আগ্রহ ছিল বেশি। যে বাড়িটিতে যাত্রামন্ডপটি অবস্থিত সেটিকে লোকজন তখন যাত্রাবাড়ি নামে ডাকতো। সেই থেকেই এলাকাটির নাম যাত্রাবাড়ি হিসাবে পরিচিত হয়। <ref name="Najir.hossain.kingbodonti">নাজির হোসেন, "কিংবদন্তির ঢাকা", তৃতীয় সংস্করণ, এপ্রিল ১৯৯৫, থ্রিস্টার কো-অপারেটিভ মালটিপারপাস সোসাইটি লিঃ, ঢাকা, পৃষ্ঠা ৩৭২, ৩৭৩</ref>

ইতিহাস[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

ঢাকা শহরের একেবারে পাশেই অবস্থিত ছিল যাত্রাবাড়ি। পাকিস্তান আমলেও যাত্রাবাড়ি ছিল নিভৃত পল্লী। <ref name="muntasir.mamaun.smriti">মুনতাসীর মামুন, "ঢাকা: স্মৃতি বিস্মৃতির নগরী", পরিবর্ধিত সংস্করণ, জুলাই ২০০৮, অনন্যা প্রকাশনী, ঢাকা, পৃষ্ঠা ২১৬, ISBN 984-412-104-3</ref> তবে সেখানে গ্রামের মতো পরিবেশ ছিল। ফুলকপি, বাঁধাকপি ও অন্যান্য তরকারী প্রচুর ফলতো সেই এলাকায়। তবে যাত্রাবাড়ির বর্তমান চিত্র সম্পূর্ণই অন্যরকম।

বর্তমান চিত্র[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

সময়ের সাথে সাথে পাল্টে গেছে যাত্রাবাড়ি এলাকার পরিধি। বর্তমানে যাত্রাবাড়ি এলাকাটি উত্তর ও দক্ষিণ যাত্রাবাড়ি নামে দুভাগে পরিচিত হয়ে থাকে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা | উৎস সম্পাদনা]

<references />